নভেম্বর 29, 2022

কক্সবাজারে ১৪৪ ধারার মধ্যেই বিএনপির সংক্ষিপ্ত সমাবেশ

1 min read

খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবিতে কক্সবাজারে মহাসমাবেশের ডাক দিয়েছিল জেলা বিএনপি। আজ সোমবার বেলা তিনটায় শহরের শহীদ মিনার সড়কে জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু একই দিন ওই সড়কের ৩০ গজ দূরত্বে কেন্দ্রীয় মিনার প্রাঙ্গণে জেলা যুবলীগ পৃথক সমাবেশের ডাক দেওয়ায় প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করেছিল।

এমন পরিস্থিতিতে আজ সকালে শহরের বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন স্টেডিয়ামের পাশে কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে পুলিশের উপস্থিতিতে সংক্ষিপ্ত আকারে সমাবেশ করেছে জেলা বিএনপি। বিএনপির দাবি, তারা ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে ১০ হাজারের বেশি লোকসমাগম করে পূর্বঘোষিত কর্মসূচি সম্পন্ন করেছে। অন্যদিকে পুলিশ বলছে, কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ ১৪৪ ধারার আওতাভুক্ত ছিল না। তারপরও শহরের শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষায় সেখানে জড়ো হওয়া লোকজনকে তারা ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে।
সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, যেকোনো সাধারণ মানুষ চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে পারেন। কিন্তু তিনবারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে দিচ্ছে না সরকার। উল্টো আইনমন্ত্রী এ নিয়ে রসিকতা করে বলেন বিদেশ থেকে চিকিৎসক এনে চিকিৎসা করাতে। নজরুল ইসলাম খান আরও বলেন, খালেদা জিয়াকে সুচিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে বাধা দেওয়ার মানে হলো তাঁকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেওয়া।

১৪৪ ধারা জারি ও বাধা প্রসঙ্গে নজরুল ইসলাম খান বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার দাবিতে সমাবেশ করতে চাইলেও বাধা আসে। দিনের ভোট রাতে নিয়ে ক্ষমতায় আসা এ সরকারের জনগণের কাছে দায়বদ্ধতা নেই। তাই সরকারের এমন আচরণ। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আজ সকাল ছয়টা থেকে বিএনপির লোকজন কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে জড়ো হতে থাকেন। সকাল নয়টার দিকে বিএনপির নেতা-কর্মীদের দিয়ে ওই ময়দান ভরে যায়। টেকনাফ, উখিয়া, খুরুশকুল, রামু, মহেশখালী ও চকরিয়া থেকেও দলীয় লোকজন ঈদগাহ ময়দানে ছুটে আসেন।