সেফুদার বিরুদ্ধে মামলা

ফেসবুকে লাইভ ভিডিওতে কোরআন নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য করার অভিযোগে সেফাত উল্লাহ সেফুদার বিরুদ্ধে মামলা করেছে ইসলামিক রিলিজিয়াস অথরিটি অস্ট্রিয়া এবং এশিয়ান কালচারাল কমিউনিটি।

শনিবার (২০ এপ্রিল) বিকেলে এশিয়ান কালচারাল কমিউনিটির প্রেসিডেন্ট এবং ইসলামিক রিলিজিয়াস অথরিটির সুপ্রিম কাউন্সিলের সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এম এ হাসেম স্থানীয় ও স্টেট প্রসিকিউটর বরাবর এ মামলা দায়ের করেন।

প্রমাণ হিসেবে সেফাত উল্লাহর ভিডিও পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। পুলিশ মামলাটি গুরুত্বের সঙ্গে আমলে নিয়েছে এবং এই বিষয়ে অধিকতর তদন্ত করা হবে বলে জানিয়েছে।

এদিকে সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে বহুল আলোচিত-সমালোচিত সেফাত উল্লাহ সেফুদাকে দেশে অথবা বিদেশে আইনের হাতে তুলে দিতে পারলে দুই লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছেন ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেজবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেল।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে দেওয়া ঘোষণায় বৃহস্পতিবার সোহেল লিখেন, ‘এই পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ধর্মগ্রন্থ পবিত্র কোরআন শরিফ অবমাননাকারী সেফাত উল্লাহ সেফুকে দেশ এবং বিদেশের মাটিতে যারা আইনের আওতায় সোপর্দ করতে পারবে, তাদের জন্য ছাগলনাইয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে নগদ দুই লাখ টাকা পুরস্কার দেওয়া হবে।’

সম্প্রতি ফেসবুক লাইভে এসে সেফাত উল্লাহ পবিত্র কোরআন শরিফ নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্য দেন। এ সময় পবিত্র কোরআনের পাতা ছিঁড়ে ফেলেন তিনি। বিষয়টি নিয়ে সামাজিক মাধ্যমজুড়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

পরে শুক্রবার বেলা ১১টায় ফেসবুক লাইভে এসে সেফাত উল্লাহ বলেন, ‘এটি কোরআন শরিফ ছিল না। এটি একটি বই। এক কবি আমাকে উপহার দিয়েছিল।’

পারিবারিক জীবনে সেফাত উল্লাহর এক সন্তান রয়েছে। তিনিও অস্ট্রিয়ায় থাকেন। তবে সেফাত উল্লাহর স্ত্রী ঢাকায় থাকেন। প্রায় ২২ বছর আগে সেফাত উল্লাহ অস্ট্রিয়ায় পাড়ি জমান।

আমাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

এই বিভাগের পোস্ট

Back to top button
Close