বিনোদন

বঙ্গবন্ধুর বিরোধিতাকারীদের আ. লীগ সরকারের মন্ত্রী হতে দেখে কষ্ট পেয়েছি: ফারুক

’৭১ পরবর্তী সময়ে বঙ্গবন্ধুর বিরোধিতাকারী জাসদ নেতাদের দিকে ইঙ্গিত করে তাদের আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের মন্ত্রী হতে কষ্ট পেয়েছেন বলে বলে মন্তব্য করেছেন সদ্য নির্বাচিত সংসদ সদস্য এবং চিত্রনায়ক আকবর হোসেন পাঠান ফারুক।

আজ বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমীতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এই কথা বলেন বলে বিডি নিউজের একটি প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

ফারুক বলেন, ““বঙ্গবন্ধুর মুখের ওপর অনেকে অনেক সময় বেয়াদবি করেছে। আমি ইনু (হাসানুল হক ইনু) সাহেবকে বলেছিলাম, আমার পকেটে বাহাত্তরের ইতিহাস এবং পঁচাত্তরের ইতিহাস আছে। আপনি বেশি কথা বললে টেনে খুলে দেখিয়ে দেব। আমরা ভয় পাই না”।

“আমরা কষ্ট পেয়েছি, এই লোক বার বার বঙ্গবন্ধুর বিরোধিতা করেছেন। তারপরও আপার কথা মানতে হয়, মেনে নিয়েছি”, যোগ করেন ফারুক।

উল্লেখ্য, জাসদের প্রধান হাসানুল হক ইনু বিগত ৭ বছর আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের তথ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তবে, এবারের মন্ত্রিসভায় জায়গা পাননি তিনি।

এছাড়াও ড. কামাল হোসেন প্রসঙ্গে ফারুক বলেন, “১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাথে মুক্তিযুদ্ধের নয় মাস পাকিস্তানে থাকা ড. কামালও দেশে ফেরেন। ওই সারা দিন কেঁদেছেন।’

‘কিন্তু তিনি যুদ্ধ তো দেখেননি, বায়ান্ন দেখেননি, আটচল্লিশ দেখেনি। তিনি কী করে জানবেন? তিনি কেঁদেছেন তার স্বার্থের জন্য। এই লোকটি তার মাথায় ধানের ছড়া নেবেন, কল্পনাও করতে পারিনি”।

উল্লেখ্য, স্বাধীনতা সংগ্রামের পর আওয়ামী লীগ থেকে একটি অংশ বেরিয়ে বঙ্গবন্ধুর চরম বিরোধিতায় নেমেছিল। আওয়ামী লীগের অনেক নেতাই এখনও দাবি করেন ওই সময় তাদের এই তৎপরতা বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডের ষড়যন্ত্রের পথ তৈরি করে দিয়েছিল।

তবে, জাসদ নেতারা তাদের বিরুদ্ধে আনা এই অভিযোগ সবসময়ই অস্বীকার করে এসেছে। তারা দাবি করেন যে তাদের বিরোধিতা শুধুই রাজনৈতিক ছিল। এর মধ্যে কোন ষড়যন্ত্র ছিলনা।

আমাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

এই বিভাগের পোস্ট

Back to top button
Close