বিনোদন

‘নায়িকা পপিকে বিয়ে করতে চাই’ (ভিডিও)

বগুড়া সদরের এরুলিয়া গ্রামের বাসিন্দা হিরো আলম শৈশবে চানাচুর বিক্রি করতেন। পরে তিনি সিডি বিক্রি এবং ডিশ সংযোগের ব্যবসা দেন। নিজেই মিউজিক ভিডিও তৈরি করে ডিশ লাইনে সম্প্রচার শুরু করেন।

এভাবে হিরো আলমের তৈরি মিউজিক ভিডিও এবং ইউটিউব সিনেমা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তিনি আলোচনায় আসেন। তিনি ‘মার ছক্কা’ নামে একটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। বলিউড পরিচালক প্রভাত কুমারের ‘বিজু দ্য হিরো’ সিনেমায় অভিনয়ের প্রস্তাব পান।

২০১৬ সালে হিরো আলমের সঙ্গে ছবি তুলে ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম ফেসবুকে প্রকাশ করেন। এরপর বিবিসি হিন্দি, জি নিউজ, এনডিটিভি, ডেইলি ভাস্কর, মিড-ডের মতো ভারতের প্রথম সারির সংবাদমাধ্যমগুলো হিরো আলমকে নিয়ে প্রতিবেদন করে। সেখানে হিরো আলমকে বাংলাদেশের বিনোদন জগতের তারকা বলে উল্লেখ করা হয়।

সদ্য শেষ হওয়া ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-৪ আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে আলোচিত হিরো আলম নির্বাচনের দিন সকালে ‘হামলা-মারধর ও এজেন্টকে বের করে দেয়াসহ একাধিক অভিযোগে এনে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। ভোট গণনা শেষে জানা যায়, নিজ আসনে সিংহ প্রতীকে ভোট পেয়েছেন মাত্র ৬৩৮টি।

মোট ভোটের এক-অষ্টমাংশ না পাওয়ায় জামানত হারিয়েছেন হিরো আলমের। ওই আসনে মোট ১ লাখ ২৬ হাজার ৭২২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপির প্রার্থী মোশারফ হোসেন।

সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে অভিনেতা ও উপস্থাপক নাজিম জয়ের মুখোমুখি হয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন হিরো আলম। মন্ত্রী হয়ে নায়িকা পপিকে বিয়ে করার ইচ্ছা পোষণ করেছেন একাদশ জাতীয় নির্বাচনে এমপি প্রার্থী হওয়া হিরো আলম।

অনুষ্ঠানে জয়ের একটি প্রশ্নের উত্তরে হিরো আলম বলেন, বাংলাদেশের অনেক নায়িকা বিয়ের বয়স পার হয়ে গেলেও বিয়ে করতেছেনা। আমাদের ধর্মে বলা আছে, একটা বিয়ে করা ফরজ। আমাকে যদি বলা হয় এসব নায়িকাদের কারও দায়িত্ব-ভার নিতে হবে, তাহলে আমি নিব। তবুও যদি তাদের বিয়ের সানাই বাজে।

কোন নায়িকাকে বিয়ে করতে চান- নাজিম জয়ের এমন এক প্রশ্নের জবাবে হিরো আলম বলেন, যেহেতু অনেকেই আমাকে বিয়ে করতে চায়, তাহলে বিয়ে তো করতেই হবে। বয়স অনেক হলেও নায়িকা পপি এখনও বিয়ে করতেছেনা।

আমি প্রস্তাব দিলে রাজিও হবে হয়তো। রাজি হলে নায়িকা পপিকে বিয়ে করা যায়। তিনি আরও বলেন, কলকাতা থেকেও আমাকে বিয়ে করার জন্য অনেকেই অফার করতেছে, কিন্তু আমি না করে দিয়েছি।

একাদশ জাতীয় নির্বাচনের কথা উল্লেখ করে হিরো আলম বলেন, ইলেকশন করে জনগণের অনেক ভালোবাসা পেয়েছি। আমি মুগ্ধ, জনগণ আমাকে ভালোবাসে, আবার প্যাদানি (মার দেওয়া) দেয়। জনগণের প্যাদানি খেয়েও আমি সাকসেসফুল (সফল)।

মন্ত্রী হওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী যাদেরকে এমপি-মন্ত্রী এমপি বানাচ্ছে, তারা সবাই ইয়াং জেনারেশন। আমার যে জনপ্রিয়তা রয়েছে, একজন ইয়াং হিসাবে প্রধানমন্ত্রী আমাকে অবশ্যই একটা মন্ত্রী বানাবে আশা করি।

এমপি না হয়ে মন্ত্রী কিভাবে হবেন এমন প্রশ্নের জবাবে হিরো আলম বলেন, আমি এমপি না হলেও আমার জনপ্রিয়তা আছে, জনগণের ভালোবাসা আছে, প্রধানমন্ত্রী অবশ্যই এগুলো দেখে ভাববে যে একে মন্ত্রী বানালে জনগণের সেবা করবে, জনগণের উন্নয়ন হবে।

হিরো আলমকে নিয়েকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কম ট্রোল হয়নি। কিন্তু এবার তিনি নতুন করে বিতর্ক সৃষ্টি করলেন নায়িকা পপিকে বিয়ে করতে চেয়ে। তবে, নায়িকা পপির মতামত পাওয়া যায়নি এ বিষয়ে।

আমাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
Back to top button