যে হাতি উপহার দেবেন, তাকেই বিয়ে করবো : টয়া

সাধারণত সামনাসামনি হাতি দেখে ভয়ে অনেকে দূরে সরে যান। তবে অভিনেত্রী মুমতাহিনা চৌধুরী টয়া সেদিক থেকে বেশ সাহসী। প্রথমবার হাতির দেখা পেয়েই তিনি আনন্দে আত্মহারা। ছুঁয়ে দেখেছেন এবং হাতির সঙ্গে শুটিংও করেছেন।

মডেল ও উপস্থাপক হিসেবেও অনেকের নজর কেড়েছেন তিনি। কাজ করেছেন আরজে হিসাবেও। এক কথায় মিডিয়ার প্রতিটি মাধ্যমে নিজেকে মেলে ধরেছেন এ অভিনেত্রী।

মজার ব্যাপার হলো কেউ যদি এই অভিনেত্রীকে একটি হাতি উপহার দেন এবং একই সঙ্গে হাতিটির ভরণপোষণের দ্বায়িত্ব নেন তাকেই বিয়ে করবেন। কথাটি শুনে অবাক হচ্ছেন হয়তো! অবাক হওয়ার কিছু নেই ঘটনাটি একেবারেই বাস্তব।

সম্প্রতি টয়া ‘তোর মনে’ শিরোনামের একটি মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেছেন। গানটি লিখেছেন জুলিয়েট। কণ্ঠ দিয়েছেন এবং সুর করেছেন কিবরিয়া বুলবুল। সঙ্গীত ও ভিডিও নির্দেশনা দিয়েছেন রুম্মান চৌধুরী। বৃহস্পতিবার ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে সিডি চয়েজের ইউটিউব চ্যানেলে গানটি প্রকাশ পেয়েছে। এতে টয়ার সঙ্গে মডেল হিসেবে ছিলেন মাহিম করিম।

এই মিউজিক ভিডিওতে কাজ করতে গিয়ে নতুন অভিজ্ঞতা হয়েছে টয়ার। শুটিংয়ের সময় একটি বিশাল আকৃতির হাতি ব্যবহার করা হয়েছে ভিডিওটির গল্পের চাহিদা অনুয়ায়ী। তবে অভিনেত্রী বেশ সাহসী। প্রথমবার শুটিংয়ের সুবাদে হাতি ছুঁয়ে দেখেছেন এবং হাতির সঙ্গে শুটিংও করেছেন।

এ বিষয়টি নিয়ে টয়া বলেন, ছোটবেলা থেকে হাতি অনেক পছন্দ করলেও এবারই প্রথম সামনে থেকে ছুঁয়ে দেখার সুযোগ পেলাম। মজার ব্যাপার হচ্ছে, হাতিকে পেয়ে আমি শুটিংয়ের কথাই ভুলে গিয়েছিলাম। হাতির কর্মকাণ্ড দেখে বেশ কয়েক ঘণ্টা কাটিয়ে দেই।

তিনি আরো বলেন, হাতি আমার এতো পছন্দ যে, কেউ যদি আমাকে একটা হাতি উপহার দেয় এবং সারাজীবন তার ভরণপোষণের দায়িত্ব নেন, তাহলে আমি তাকেই বিয়ে করবো।

এখন দেখার অপেক্ষা ঘটনাটির বাস্তব রূপ টয়ার জীবনে ঘটে কিনা। নাকি অতি উচ্ছ্বাসিত হয়ে আবেগের বসত এমনটি বলেছেন এই লাক্স সুন্দরী।

আমাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

এই বিভাগের পোস্ট

Back to top button
Close