মৃত্যুর আগে এলআরবি নিয়ে সন্তানদের যা বলেছিলেন বাচ্চু

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে গত বছরের ১৮ অক্টোবর সকালে ইন্তেকাল করেন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ও এলআরবির প্রধান আইয়ুব বাচ্চু। তার মৃত্যুর পর এলআরবি ব্যান্ড নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েন ব্যান্ডের বাকি সদস্য এবং আইয়ুব বাচ্চুর ভক্তরা।

আর কোন দিন এলআরবি নামে ব্যান্ডের কার্যক্রম পরিচালনা হবে কি না, তা নিয়ে সংশয় দেখা দেয়। এমন হতাশায় যখন ভক্তরা তখন আশার আলো নিয়ে কথা বললেন এলআরবির ব্যবস্থাপক শামীম আহমেদ।

তিনি জানান, ‘এলআরবি আবার মঞ্চে আসবে। ব্যান্ডটিকে আমরা চালু রাখতে চেয়েছি। বসের (আইয়ুব বাচ্চু) ভালোবাসা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছি আমরা। তাঁর সবকিছুই আমাদের সঙ্গে আছে। তিনি আছেন, থাকবেন আমাদের মাঝে।’

মৃত্যুর আগে আইয়ুব বাচ্চু তাঁর অবর্তমানে এলআরবি ব্যান্ডের কী হবে, তা নিয়ে দুই সন্তানকে কিছু নির্দেশনা দিয়ে গেছেন।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) দুপুরে অস্ট্রেলিয়ার সিডনি থেকে আইয়ুব বাচ্চুর মেয়ে ফাইরুজ সাফরা গণমাধ্যমকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে বলেছেন, ‘বাবা সব সময় বলতেন, আমাকে ছাড়া এলআরবি চলবে না। আমার এই সম্পদের অধিকার শুধু তোমার আর তোমার ভাইয়ের।

বাবা একটা কথা সব সময় পরিষ্কার করে বলতেন, আমি তোমাদের খুব গরিব বাবা। আমার অনেক সীমিত জিনিস। আমার সবচেয়ে বড় সম্পদ আমার ছেলে ও মেয়ে। জীবনে অনেক শ্রম দিয়ে তোমাদের লেখাপড়া করিয়েছি।

বাবার এই কথা আমি সব সময় মনে রেখেছি। তিনি প্রায়ই বলতেন, আমি না থাকলে, আমার কোনো জিনিসকে কখনো উল্টাপাল্টা হতে দিবা না। দাদু মারা যাওয়ার পর বাবা বলেছিলেন, আমি মারা গেলে আমাকে মায়ের পাশে কবর দিয়ো।

তখন রাগ করে বাবাকে বলছিলাম, ফালতু কথা বইল না। এসব নিয়ে কেন চিন্তা করছি? সন্তান হিসেবে দেশের বাইরে বসে কিছুই করতে পারছি না। নিজেকে খুব ছোট মনে হচ্ছে। মা বাংলাদেশে, আমি অস্ট্রেলিয়ায় আর ভাই কানাডায়।’

আমাদের মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

এই বিভাগের পোস্ট

Back to top button
Close